রাত ১১:০২ | ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২৩শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ব্রেকিং নিউজ

মাদারীপুর ১৩ বছরে এক কিশরী ধর্ষনের অভিযোগে,থানায় মামলা,গ্রেফতার ১

মো: আরিফুর রহমান মাদারীপুর প্রতিনিধি: ১৩বছরের একটি মেয়েকে ধরে নিয়ে একটি বাগানে রাতভর ধর্ষণ করেছে বরাত শিকদার নামে এক বখাটে  এই নিয়ে মেয়েটির পরিবার অভিযোগ করেছে এবং গত মঙ্গলবার বিকালে মাদারীপুর সদর থানায় ৩ জনের নাম উল্লেখ করে একটি ধর্ষণ মামলা করা হয়েছে। আর মামলা হওয়ার পর পুলিশ একদিন পর একজনকে গ্রেফতার করছে। তবে প্রধান আসামিকে এখনো  গ্রেফতার করতে পারেনি  পুলিশ।

স্থানীয় ও মামলা সুত্রে জানা যায়, মাদারীপুর সদর উপজেলার আমিরাবাদ এলাকার হাবিবুর রহমানের ছোট মেয়ে বাসার পাশে ঈদের ৩র্য় দিন(২৮-০৬-১৭) বুধবার রাত ৯টার দিকে টিউবওয়েল থেকে খাবার পানি আনতে গেলে আগে থেকে উৎ পেতে থাকা মৃত্যু আশ্রাফ আলি শিকদার বখাটে ছেলে বরাত শিকাদার(২৩) মেয়েটিকে পিছন থেকে মুখ চেপে ধরে একই এলাকার হাবিব মিয়ার বিল্ডিং এর পিছনে নিয়ে হাত পা বেধে হত্যার হুমকি দিয়ে ধর্ষণ করে এবং ঐ সময় রিপন শিকদার(২৫) ও আশিক শিকদার(১৯) পাশে পাহাড়া দিতে থাকে। রাতভর ধর্ষণ করারহ পর মেয়েটি সকালে কৌশলে পালিয়ে আসে এবং পরিবারের কাছে জানালে তারা বখাটের পরিবারের কাছে বিচার চাইলে তারা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে পরে। পরে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিরা এর সমাধান করে দেয়ার আশ্বাস দিলে মামলা থেকে বিরত থাকে এতে বখাটে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে নানা রকম হুমকি দিতে থাকে এরপর গতকাল মঙ্গলাবার বিকালে বরাত শিকদারকে প্রধান আসামি করে তিনজনের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা করা হয়েছে। আর মামলা করার পরও প্রধান আসামি এলাকা দিয়ে দিব্বি ঘুরে বেড়াচ্ছে। এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিরা সমাধান করে দিতে চাওয়ায় তাদের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ভাংচুর করেছে। এলাকবাসী এই ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবী করেছে।

মেয়ের বড় বোন জানান , রাতে যখন আমার বোন পানি আনতে যায় এবং তারপর থেকে আমার বোন নিখোজ থাকে আমরা অনেক খোজাখোজি করার পরা পাই নাই। পরে যখন আমার বোন সকালে বাড়ী এসে অমানুষিক নির্যাতনের কথা বলে তখন আমরা সাথে সাথে বখাটের পরিবারের কাছে এই ব্যপারে অভিযোগ করলে উল্টো আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। পরে আমরা এলাকার গন্যমান্য লোকের কাছে জানালে তার একটা সমাধান দিবে বলে আমাদের আশ্বাস দিলে মানসম্যানের ভয়ে চুপ থাকি। কিন্ত বখাটে বরাত শিকদার আমাদের বিভিন্ন ভাবে নানা রকম হুমিক দিয়ে যাচ্ছে, তারপর আমরা মামলা করতে বাধ্য হই। আমি এই বখাটের বিচার চাই। এখন আমার বোনের কি হবে। এর দায় ভার কে নিবে। আমার ছোট একটি বোন। এইভাবে কান্না জড়িত কন্ঠে বর্ননা দিলেন।

মাদারীপুর বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মনিরুল ইসলাম ভুইয়া (তুষার ভুইয়া) বলেন, এই ছেলেটি এালাকায় বিভিন্ন মাদকদ্রবের ব্যবসা করছে। অনেক বার তাকে এ থেকে ফিরতে বলা হয়েছে। সে অনেকবার জেলও খেটেছে। আমি আমার এলাকার সচেতন নাগরীক হিসেবে বলবো, এই বখাটের কঠোর থেকে কঠোর বিচার হওয়া উচিত। আমি চাই প্রশাসন অতিসত্তর তদন্ত সাপেক্ষে আসামিকে গ্রেফতার করে বিচারের আলতায় আনবে। যাতে এরকম ঘটনা পুণরায় না ঘটে। এবং তিনি আরও বলেন বখাটে ছেলেটি যে ক্ষিপ্ত হয়ে বনিক সমিতির ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান ভাংচুর করেছ তাই তার বিরুদ্ধে আইনানুক ব্যবস্থা নেয়া হবে।মাদারীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল মোর্শেদ জানান, থানান মামলা হয়েছে আমরা তদন্ত করছি, একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হয়েছে।  এবং অন্য আসামিকে গ্রেফতারের চেস্টা চলছে। বাকিটা তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

 

মো: আরিফুর রহমান

মাদারীপুর প্রতিনিধি

০১৯১১১২৮৫৭৭

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *