সকাল ১১:৪৬ | ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২২শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ব্রেকিং নিউজ

‘বিএনপির আন্দোলনের মুরোদ নেই, তাই বিদেশে বসে ষড়যন্ত্র করছে’

স্টাফ রিপোর্টার :  আন্দোলন করার মুরোদ নেই, তাই বিদেশে বসে বিএনপি সরকারকে হটানোর ষড়যন্ত্র করছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শনিবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটউশন মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘লন্ডনের খবর, দুবাইয়ের খবর, ব্যাংককের খবর, কি কি শলা-পরামর্শ হচ্ছে, শেখ হাসিনার সরকারকে হটানোর জন্য কোন কোন পথ খোঁজা হচ্ছে- এসব খবর এই তথ্য প্রবাহের যুগে গোপন থাকে না। সব আমরা জানি। কারা কারা এই ষড়যন্ত্রের কলকাঠি নাড়ছে সব খবর আমাদের কাছে আছে।’
‘ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে প্রধান বিচারপতি জনগণের একটি উপকার করেছেন। বর্তমান অবৈধ সংসদ ভেঙে দেওয়া উচিৎ, এমন কোনও রায় দিয়ে তিনি আরও একটি উপকার করতে পারেন’, বিএনপি নেতা হাফিজ উদ্দিন আহমেদের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে কাদের বলেন, ‘হাফিজ সাহেবের মামাবাড়ির আবদার। এরপর আবার আরেক কাঠি এগিয়ে বলবে বিএনপিকে ক্ষমতায় বসানোর রায় দেওয়া হোক।’ সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে বিএনপি গর্ত থেকে বের হয়ে লাফালাফি করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
যুবলীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা ঐক্যবদ্ধ হোন। এ অপশক্তিকে প্রতিরোধ, প্রতিহত করতে হবে। জামায়াতকে নিয়ে বিএনপি এখন পুরানো খেলায় মেতে উঠেছে। এজন্য আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। প্রস্তুত হয়ে যান, বিএনপি ক্ষমতায় এলে ২০০১ সালের চেয়েও ভয়ঙ্কর অবস্থা ফিরে আসবে।’

খালেদা জিয়ার জন্মদিন বিষয়ে কাদের বলেন, ‘যারা ১৫ আগস্ট ভুয়া জন্মদিনের কেক কেটে আমাদের হৃদয়ে এবং অনুভূতিতে আঘাত করে তাদের সঙ্গে কেন সংলাপ করবো? তারা বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনাকে বিদ্বেষের চোখে দেখে।’

বিএনপি উত্তরাঞ্চলে কোনও ত্রাণ দেয় নাই অভিযোগ করে কাদের বলেন, ‘দুর্গত এলাকার কোনও মানুষ বলতে পারে নাই বিএনপি ত্রাণ নিয়ে কোনও এলাকায় গেছে। তারা দুর্গত এলাকায় গিয়ে ফটোসেশন করে এখন ঢাকায় বসে সরকারের বিরুদ্ধে বিষেদগার করছে। তারা ঘরে বসে প্রেস ব্রিফিং করে, নালিশ আর কান্নাকাটি করে। রাজনীতিতে দুর্বল ও কাপুরুষের অবলম্বন হলো কান্নাকাটি।’

যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য নাসরিন আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি এ এস এম মাকসুদ কামাল, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ প্রমুখ। সভার সঞ্চালনায় ছিলেন ইকবাল মাহমুদ বাবলু।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *