রাত ৩:০৯ | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ব্রেকিং নিউজ

ফের পেছালো ব্লগার অনন্ত হত্যা মামলার অভিযোগ গঠন

স্টাফ রিপোর্টার :  বিজ্ঞান বিষয়ক লেখক ও গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক অনন্ত বিজয় দাশ হত্যা মামলার অভিযোগ গঠন ফের পিছিয়েছে।  মঙ্গলবার  (২০ জুন) দুপুরে সিলেট মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধার আদালতে অভিযোগ গঠনের কথা থাকলেও মামলার তিন আসামি পলাতক থাকায় অভিযোগ গঠন হয়নি। বিচারক অভিযোগ গঠনের তারিখ পিছিয়ে আগামী ১৬ জুলাই নির্ধারণ করেছেন।

গত ৮ মে সিলেটের মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছয়জনকে আসামি করে সম্পূরক অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন। গত ২৩ মে অভিযোগ গঠনের তারিখ থাকলেও পলাতক তিন আসামি গ্রেফতার না হওয়ায় অভিযোগ গঠন করা হয়নি।

সিলেট মহানগর দায়রা জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট মফুর আলী জানান, ব্লগার অনন্ত বিজয় হত্যা মামলার চার্জ গঠন আগামী ১৬ জুলাই নির্ধারণ করেছেন আদালত। এ মামলায় অভিযোগপত্র থেকে ফটোসাংবাদিক ইদ্রিস আলীসহ ১০ জনকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। আগের অভিযোগপত্রে ৫ জনকে আসামি করা হলেও সম্পূরক অভিযোগপত্রে নতুন করে যুক্ত করা হয়েছে উগ্রপন্থী ব্লগার সাফিউর রহমান ফারাবীর নাম।

তিনি আরও জানান, আদালতে হাজির না হওয়ায় আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

চার্জভুক্ত আসামিরা হলেন- আবুল হোসাইন (২৫), ফয়সল আহমদ (২৭), হারুনুর রশীদ (২৫), মান্নান ইয়াহিয়া ওরফে মান্নান রাহি ওরফে এবি মান্নান (২৪), আবুল খায়ের রশীদ আহম্মেদ (২৪) ও সফিউর রহমান ফারাবি ওরফে ফারাবি সাফিউর রহমান (৩০)। এর মধ্যে প্রথম তিন আসামি পলাতক ও অপর তিন আসামি কারাগারে রয়েছে।

অভিযুক্তদের মধ্যে মঙ্গলবার (২০ জুন) আদালতে উপস্থিত ছিলেন আবুল খায়ের রশিদ আহম্মদ ও মান্নান ইয়াহইয়া ওরফে মান্নান রাহি। এ মামলায় গ্রেফতারকৃত অন্যতম আসামি সাফিউর রহমান ফারাবী ওরফে ফারাবী সাফিউর রহমান অন্য মামলায় আরও একটি আদালতে হাজিরা থাকায় আদালতে উপস্থিত করা যায়নি।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ১২ মে সকালে সিলেটের সুবিদবাজারের নূরানী আবাসিক এলাকার চৌরাস্তার দুর্বৃত্তদের হাতে খুন হন অনন্ত বিজয় দাশ (৩২)। এ ঘটনার একদিন পর অনন্তের বড় ভাই রত্নশ্বর দাশ বাদী হয়ে সিলেট মহানগরের বিমান বন্দর থানায় অজ্ঞাত চারজনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *