সকাল ১১:৪১ | ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২২শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ব্রেকিং নিউজ

চঞ্চল ও মিলির সুখের সংসার

বিনোদন ডেস্ক :  ‘মনপুরা’ সিনেমায় সফল জুটি চঞ্চল চৌধুরী-ফারহানা মিলি। ছবিতে একজন অপরজনকে ভালবাসলেও পরিণয় ঘটেনি। তবে এবার ঈদের জন্য নির্মিত নাটক ‘হ্যাপি ফ্যামিলি’ নাটকে সুখে শান্তিতে সংসার করতে দেখা যাবে তাদের।

নাটকে দেখা যাবে দুজন-দুজনকে ভালোবেসে বিয়ে করেছেন তারা। আর তাদের ঘরে আসছে নতুন অতিথি। নাটকটিতে কাশেম ও ভানুমতি চরিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল ও মিলি।

বৃন্দাবন দাসের রচনা ও দীপু হাজরার পরিচালনায় নাটকটির গল্পে দেখা যায় হাশেম-কাশেম দুই ভাই। আলাদা সংসার। প্রতিদিন সকাল হলেই দুই পরিবারে শুরু হয় ঝগড়া, চলে ঘুমাবার পূর্ব পর্যন্ত। কিন্তু গ্রামবাসীকে তারা বড়মুখ করে বলে ‘আমরা হ্যাপি ফ্যামিলি’। গ্রামবাসীও অবশ্য জানে তারা কেমন হ্যাপি ফ্যামিলি।

একদিন বড় ভাই হাশেম বউয়ের উপর রাগ করে বিষ পান করতে বাইরে চলে যায়। দিন পার হয়ে গেলেও বাড়ি ফেরেনা সে। সকলে উদ্বিগ্ন। সত্যিই কি হাশেম মরে গেল? এমন গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে ঈদের বিশেষ নাটকটি।

এতে চঞ্চল চৌধুরী ও ফারহানা মিলি ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন ফজলুর রহমান বাবু, শাহানাজ খুশী, মাসুদ রানা মিঠু, দিব্য জ্যোতি, শম্য জৌতি, বেলাল প্রমূখ।

এ প্রসঙ্গে চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘বৃন্দাবন’দার গল্প বরাবরই অন্যরকম। প্রতিটি চরিত্রেই থাকে ভিন্নতা, কাজও করি মনের আনন্দে। আর দীপুর সাথে এটি আমার ৭ম নাটক তাই বোঝাপড়াও অনেক পুরনো। নাটকটি অনেক ভালো হয়েছে। আশা করি দর্শকরা বেশ ভালোভাবে উপভোগ করবেন নাটকটি।’

ফারহানা মিলি বলেন, ‘এর আগে বৃন্দাবন দাদার দু’একটি নাটক আমি করেছি। তার লেখা একটি ধারাবাহিকেও অভিনয় করছি। যেহেতু নাকটটি পাবনার আঞ্চলিক ভাষায় লেখা তাই শুরুতে আমার কিছুটা কষ্ট হলেও বৃন্দাবন দাদা, চঞ্চল দাদা, খুশী আপা পাশে থেকে সহযোগিতা করায় তেমন কঠিন বলে মনে হয়নি। আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।’

‘হ্যাপি ফ্যামিলি’ নাটকটি আসছে ঈদে গাজী টিভিতে প্রচারিত হবে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *