রাত ১২:৫৮ | ৩রা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ১৭ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
ব্রেকিং নিউজ

ক্ষিণাঞ্চলের চাহিদা মেটাচ্ছে ঝালকাঠির হাতে তৈরি সুস্বাধু সেমাই

 

খাইরুল ইসলাম, ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঈদকে সামনে রেখে ঝালকাঠিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে হাতে তৈরী সুস্বাধু সেমাই কারখানাগুলোর শ্রমিকরা। দক্ষিণাঞ্চলের চাহিদা মেটাচ্ছে ঝালকাঠির হাতে তৈরি সুস্বাধু সেমাই। রমজানের শুরু থেকেই সেমাই কারখানাগুলোতে ব্যস্ততা বেড়ে যায় দিগুন। ঈদকে সামনে রেখে বাড়তি চহিদা পুরণে এখন দিন-রাত চলছে সেমাই তৈরীর কাজ। পুরুষের পাশাপাশি পিছিয়ে নেই নারীরাও। তবুও বাড়তি সরবারাহ যোগাতে হিমসীম খাচ্ছেন ঝালকাঠি জেলা সদরসহ ২০টি সেমাই তৈরী কারখানার কারিগর ও শ্রমিকরা।

কারখানার মালিকরা জানিয়েছে, এসব কারখানায় উৎপাদিত সাধারণ এবং লাচ্ছা সেমাই স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে সরবরাহ করা হয় দেশের বিভিন্নস্থানে। প্রতি কেজি লাচ্চা সেমাই বিক্রি হয় ৮০ টাকা দরে। কিন্তু উৎপাদন খরচ হয় ৫০ থেকে ৬০ টাকা। ফলে লাভ থাকছে খুবই কম। তার উপর বিগত বছরগুলোর তুলনায় এ বছর সেমাই তৈরির প্রধান কাঁচামাল-ময়দা ও ডালডার দাম বেশি হওয়ায় ব্যবসায়ীক ভাবে লাভ খুব বেশি থাকছেনা।

ঈদকে কেন্দ্র করে দুই শতাধিক শ্রমিক কাজ করছেন ঝালকাঠির সেমাই কারখানাগুলোতে। ভোলাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের শ্রমিকরা ঝালকাঠির এসব কারখানায় কাজ করে যে মজুরী পাবেন, তা দিয়ে তাদের পরিবার নিয়ে হবে এবারের ঈদ উদযাপন। পাশাপাশি মালিকক্ষের জন্যও ঈদকে কেন্দ্র করে বাড়তি আয়র পথ তৈরি করে দিয়েছে ঝালকাঠির সুস্বাদু এই সেমাই।”

এদিকে বিগত বছরগুলোর তুলনায় উৎপাদনের গুনগত মান নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও এ বছর ব্যতিক্রম বেশ স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশে তৈরি হচ্ছে সুস্বাধু সেমাই। রয়েছে পৌরসভারও তদারকী।

ঝালকাঠি স্যানেটারী ইনেসপেক্টার মো. আব্দুস সালাম সিকদার জানান, সেমাই কারখাখাগুলোতে সরেজমিনে গিয়ে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ প্রতীয়মান বিবেচনায় পরিবেশ সনদ দেয়া হয়েছে এবং আমাদের গঠিত মনিটরিং টীম প্রতিনিয়ত তদরকি করছে। তারপরও কোন প্রকার অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যববস্থা নেয়া হবে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *