রাত ৩:১৩ | ৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ব্রেকিং নিউজ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনটি আসনে লড়বেন এরশাদ

স্টাফ রিপোর্টার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এখনও বাকি দেড় বছরের মত। কিন্তু সংসদে প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টি নির্বাচনী প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে এখন থেকেও প্রায় এক বছর আগে। ৩০০ আসনে দলীয় প্রার্থীও ঠিক করার কাজ চলছে বলেও জানিয়েছেন নেতারা। এর মধ্যে দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আসনও আছে। তার জন্য দুটি আসন মোটামুটি চূড়ান্ত হয়েছে। আরও একটি আসন খোঁজা হচ্ছে।

বর্তমান নির্বাচন ব্যবস্থায় কোনো একজন প্রার্থী মোট তিনটি করে আসনে নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন। আর জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এবারও তিনটি আসনেই লড়বেন বলে জানিয়েছেন দলের নেতারা।

এই তিন আসনের মধ্যে দুইটি আসনে নির্বাচনের কথা ঘনিষ্ঠদের জানিয়েছেন এরশাদ। এরশাদের ব্যক্তিগত সচিব খালিদ আক্তার  বলেন, ‘দলের চেয়ারপারসন একাদশ নির্বাচনে তিনটি আসনে লড়বেন। এরমধ্যে দুইটি আসন ঠিক হয়েছে। একটি হচ্ছে ঢাকা-১৭। আরেকটি রংপুর-৩। তবে তৃতীয় আসন কোনটি হবে সেটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। নির্বাচনের আগে আগে হয়তো সেটি ঠিক হবে।’

খালিদ আক্তার বলেন, ‘চেয়ারম্যান স্যারের তৃতীয় আসনটি কুড়িগ্রাম নাকি সিলেট হবে সেটি এখনো নিশ্চিত নয়।’

গত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনটি আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন এরশাদ। এরমধ্য রয়েছে ঢাকা-১৭, রংপুর-৩ ও লালমনিরহাট-১। ওই নির্বাচনে এরশাদ নির্বাচনে বর্জনের ঘোষণা দিয়ে আবার তিনটি আসন থেকেই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেন। এরমধ্য আইনি জটিলতার কারণে ঢাকা-১৭ আসন ছাড়া বাকি দুইটি আসনের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার হয়নি। ওই নির্বাচনে মাঠে না থাকলেও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) প্রার্থী মো. সাব্বির হোসেনকে হারিয়ে রংপুর-৩ আসনে জয়ী হন এরশাদ। লালমনিরহাট-১ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোতাহার হোসেনের কাছে বিপুল ভোটের ব্যবধানে হেরে যান জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান।

এর আগে ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচনেও তিনটি আসন থেকে লড়েছিলেন এরশাদ। নিজের এলাকা রংপুর-৩ ছাড়াও কুড়িগ্রামের একটি আসন এবং ঢাকা-১৭ আসনে ভোট করেন এরশাদ। তিনটিতেই তিনি জিতেন এবং ঢাকা-১৭ ছেড়ে বাকি দুটি আসন ছেড়ে দেন।

২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনের আগে ১৯৮৬ সাল থেকে কোনো একজন প্রার্থী সর্বোচ্চ পাঁচটি আসনে দাঁড়াতে পারতেন। আর এরশাদ প্রতিবারই পাঁচটি আসনে দাঁড়িয়েছেন। আর প্রতিটি আসনেই তিনি জিতে এসেছেন।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *